ভারতের আসাম রাজ্যের শিলচরের ১১ বাংলা ভাষা শহীদকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস আবৃত্তি সংগঠন। আজ বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুর সোয়া ১২টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ১১ বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায় সংগঠনটি। ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা থেকে আসা শ্রুতি আবৃত্তি সংগঠনের ১৩ সদস্যের প্রতিনিধি দলও শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ভাষা শহীদদের। এরপর সেখানে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা ও আবৃত্তি অনুষ্ঠান। কর্মসূচী উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাহিত্য একাডেমির সভাপতি কবি জয়দুল হোসেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এ. এস. এম. শফিকুল্লাহ। শ্রদ্ধা নিবেদন করে বক্তব্য রাখেন সরকারি মহিলা কলেজ উপাধ্যক্ষ ড.মো.ইব্রাহিম ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি, সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন, সহসভাপতি ইব্রাহিম খান সাদাত, তিতাস সাহিত্য-সংস্কৃতি পরিষদ সহসভাপতি ফরহাদুল ইসলাম পারভেজ,নোঙর সভাপতি শামীম আহমেদ, আবরণী আবৃত্তি চর্চা কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক হাবিবুর রহমান পারভেজ,সোনালী সকাল পরিচালক ফাহিম মুনতাসির। আলোচনার আগে তিতাস আবৃত্তি সংগঠনের ছোটদল ও মধ্যমদল ও আগরতলার শ্রুতি আবৃত্তি সংগঠনের সদস্যরা বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করেন। এসময় একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন শ্রুতি সংগঠনের মৃনাল দেবনাথ ও সায়ন্তিকা সাহা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আবৃত্তিশিল্পী রেজা এ রাব্বী ও তাসফিয়া ইসলাম প্রমি।

উল্লেখ্য, ১৯৬১ সালের ১৯ মে আসামের শিলচরে বাংলা ভাষার অধিকার আদায়ের লড়াাইয়ে পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারান এক নারীসহ ১১ জন। গত ৮/৯ বছর ধরে তিতাস আবৃত্তি সংগঠন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় ১৯ মে উদযাপন করে আসছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here