Dhaka 2:25 pm, Tuesday, 28 May 2024
News Title :
কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা; প্রবাসে এক কক্ষে ১৩ দিন অনাহারে বন্দি ১২ যুবক নির্মাণের ৫ বছর পর আজ উদ্বোধন হচ্ছে সরাইল মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নাসিরনগরে দুর্নীতি বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত সরাইলে অজ্ঞাতনামা বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিশ্ব মেডিটেশন দিবস উদ্‌যাপন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর কলেজে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সরাইলে সরকারী স্কুলে দূর্ধর্ষ চুরি নৈশ প্রহরীর বিরূদ্ধে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ সরাইলে নদীর দখল ছাড়বেন না আ’লীগ নেতা উচ্ছেদ ঠেকাতে সক্রিয় দালাল চক্র ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুর্নীতি বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে দুর্নীতি বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

২১ আগস্টে শেখ হাসিনাকে,আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করবার জন্যই গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো-এমপি মোকতাদির

  • Reporter Name
  • Update Time : 11:07:39 pm, Sunday, 21 August 2022
  • 121 Time View

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন,২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামীলীগের সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে বিএনপি-জামাত সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় জঙ্গীবাদী গোষ্ঠী প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনার উপর উপর্যপুরি গ্রেনেড ছুঁড়ে মারে। ২১ আগস্টে খুনীচক্র শেখ হাসিনাকে,আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করবার জন্যই গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো। আল্লাহর অশেষ রহমতে মঞ্চে ছুঁড়ে মারা গ্রেনেডটি বিস্ফোরিত হয়নি না হলে নেত্রী সহ আওয়ামীলীগের সকল নেতারাই মারা যেতেন। এর মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগই ধ্বংসের উপক্রম হতো,৭৫ এর পরিস্থিতিতে আমরা পড়ে যেতাম। সেদিনের হামলার ঘটনায় আমরা সাহসী নেত্রী আইভী রহমান সহ ২২ জনকে হারিয়েছি। সেদিন ঢাকার এমন কোনো হাসপাতাল ছিলো না যেখানে কান্নার রুল পড়েনি। তিনি আজ রোববার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বঙ্গবন্ধু স্কয়াওে জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্য করে আরো বলেন,যারা দেশে নাশকতা,সন্ত্রাস করে তারা কথায় কথায় আমাদের শিক্ষা দিতে চায়। কিন্তু তারা ভুলে গেছে বিএনপি-জামাতের সরকারের সময় কিভাবে আমাদেও জাতীয় নেতাদের হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু আমরা ভুলিনি। আমরা ভুলিনি তাদের গ্রেনেড-বোমা সন্ত্রাস এবং পরবর্তীতে আগুন সন্ত্রাসের কথা। তিনি হুশিয়ারী উচ্চারণ কওে বলেন,আমরা কোনো অপরাধী কর্মকান্ডকে বিনা বাঁধায় ছেড়ে দেবো না। সকল অপচেষ্টা-ঘৃণ্য কারসাজিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাগ্রত জনতা প্রতিহত করবে। তিনি বলেন,আপনারা গুম-খুনের কথা বলবেন না কারণ ৭৫ সালের পর থেকে ২১ বছর আমাদের কতোশতো নেতাকর্মীকে খুন-গুম করা হয়েছে এবং ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত কতো নেতাকর্মীকে আপনারা হত্যা করেছেন তা এ দেশের মানুষ ভুলে নাই। তিনি আরো বলেন,রাশিয়া-ইউক্রেন এর যুদ্ধ এবং তেল কোম্পানীগুলো মুনাফালোভীর কারণে বাজার কিছুটা বাড়তি। এ অবস্থায় অস্থির হলে চলবেনা,ধৈর্য্য ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন,করোনার দু,বছরে একজন মানুষও এদেশে না খেয়ে থাকেনি। আগামী দিনে শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোনো মানুষ না খেয়ে মারা যাবে না। তিনি আরো বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে মানুষের কোনো অভিযোগ। আমরা শেখ হাসিনার পাশে আছি-থাকবো। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের উপদপ্তর সম্পাদক মো.মনির হোসেন এর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, সহসভাপতি সাবেক পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন,হেলাল উদ্দিন,মুজিবুর রহমান বাবুল,যুগ্ম-সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু,মঈনউদ্দিন মঈন,গোলাম মহিউদ্দিন খান খোকন,সাংগঠনিক সম্পাদক এড.মাহবুবুল আলম খোকন,সদর উপজেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূঞা,পৌর সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম,জেলা যুবলীগ সভাপতি এড.শাহানুর ইসলাম,সাধারণ সম্পাদক এড.সিরাজুল ইসলাম,জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক এড.তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত,জেলা কৃষকলীগ আহবায়ক সাদেকুর রহমান শরীফ,জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এড.লোকমান হোসেন,জেলা শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফ খান আশা,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল হোসেন রুরেল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন,বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোরায়রাহ,মাও.ক্বারী আনিসুর রহমান,বিজয়নগর আওয়ামীলীগ যুগ্ম-সম্পাদক জাহাঙ্গীর মিরধা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় খবর

কোটি টাকা নিয়ে লাপাত্তা; প্রবাসে এক কক্ষে ১৩ দিন অনাহারে বন্দি ১২ যুবক

fapjunk
© All rights reserved ©
Theme Developed BY XYZ IT SOLUTION

২১ আগস্টে শেখ হাসিনাকে,আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করবার জন্যই গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো-এমপি মোকতাদির

Update Time : 11:07:39 pm, Sunday, 21 August 2022

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন,২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামীলীগের সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে বিএনপি-জামাত সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় জঙ্গীবাদী গোষ্ঠী প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনার উপর উপর্যপুরি গ্রেনেড ছুঁড়ে মারে। ২১ আগস্টে খুনীচক্র শেখ হাসিনাকে,আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করবার জন্যই গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো। আল্লাহর অশেষ রহমতে মঞ্চে ছুঁড়ে মারা গ্রেনেডটি বিস্ফোরিত হয়নি না হলে নেত্রী সহ আওয়ামীলীগের সকল নেতারাই মারা যেতেন। এর মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগই ধ্বংসের উপক্রম হতো,৭৫ এর পরিস্থিতিতে আমরা পড়ে যেতাম। সেদিনের হামলার ঘটনায় আমরা সাহসী নেত্রী আইভী রহমান সহ ২২ জনকে হারিয়েছি। সেদিন ঢাকার এমন কোনো হাসপাতাল ছিলো না যেখানে কান্নার রুল পড়েনি। তিনি আজ রোববার বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের বঙ্গবন্ধু স্কয়াওে জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্য করে আরো বলেন,যারা দেশে নাশকতা,সন্ত্রাস করে তারা কথায় কথায় আমাদের শিক্ষা দিতে চায়। কিন্তু তারা ভুলে গেছে বিএনপি-জামাতের সরকারের সময় কিভাবে আমাদেও জাতীয় নেতাদের হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু আমরা ভুলিনি। আমরা ভুলিনি তাদের গ্রেনেড-বোমা সন্ত্রাস এবং পরবর্তীতে আগুন সন্ত্রাসের কথা। তিনি হুশিয়ারী উচ্চারণ কওে বলেন,আমরা কোনো অপরাধী কর্মকান্ডকে বিনা বাঁধায় ছেড়ে দেবো না। সকল অপচেষ্টা-ঘৃণ্য কারসাজিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাগ্রত জনতা প্রতিহত করবে। তিনি বলেন,আপনারা গুম-খুনের কথা বলবেন না কারণ ৭৫ সালের পর থেকে ২১ বছর আমাদের কতোশতো নেতাকর্মীকে খুন-গুম করা হয়েছে এবং ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত কতো নেতাকর্মীকে আপনারা হত্যা করেছেন তা এ দেশের মানুষ ভুলে নাই। তিনি আরো বলেন,রাশিয়া-ইউক্রেন এর যুদ্ধ এবং তেল কোম্পানীগুলো মুনাফালোভীর কারণে বাজার কিছুটা বাড়তি। এ অবস্থায় অস্থির হলে চলবেনা,ধৈর্য্য ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন,করোনার দু,বছরে একজন মানুষও এদেশে না খেয়ে থাকেনি। আগামী দিনে শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোনো মানুষ না খেয়ে মারা যাবে না। তিনি আরো বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে মানুষের কোনো অভিযোগ। আমরা শেখ হাসিনার পাশে আছি-থাকবো। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের উপদপ্তর সম্পাদক মো.মনির হোসেন এর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, সহসভাপতি সাবেক পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন,হেলাল উদ্দিন,মুজিবুর রহমান বাবুল,যুগ্ম-সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু,মঈনউদ্দিন মঈন,গোলাম মহিউদ্দিন খান খোকন,সাংগঠনিক সম্পাদক এড.মাহবুবুল আলম খোকন,সদর উপজেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূঞা,পৌর সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম,জেলা যুবলীগ সভাপতি এড.শাহানুর ইসলাম,সাধারণ সম্পাদক এড.সিরাজুল ইসলাম,জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক এড.তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত,জেলা কৃষকলীগ আহবায়ক সাদেকুর রহমান শরীফ,জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এড.লোকমান হোসেন,জেলা শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফ খান আশা,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রবিউল হোসেন রুরেল,সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন,বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোরায়রাহ,মাও.ক্বারী আনিসুর রহমান,বিজয়নগর আওয়ামীলীগ যুগ্ম-সম্পাদক জাহাঙ্গীর মিরধা।