সরাইলে জুয়ারিদের হামলায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এরপরও পুলিশ ৩ জুয়ারিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছেন। আহত দুই পুলিশ সদস্য হলেন এস আই মো. মিজানুর রহমান ও এ এস আই মো. সামছু। গত রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার অরূয়াইলে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, অরূয়াইল পাকশিমুল এলাকায় গড়ে ওঠেছে একটি শক্তিশালী জুয়ার সিন্ডিকেট। স্থানীয় প্রভাবশালী থেকে শুরূ বিভিন্ন জায়গা ম্যানেজ করেই এরা গত ১০-১২ বছর ধরে সেখানে জুয়া খেলছে। দিনে রাতে সেখানে লাখ লাখ টাকার খেলা হয়। দূর দূরান্ত থেকে অনেক জুয়ারি সেখানে যান। ফলে সেখানে চুরি ছিনতাই হত্যাকান্ড সহ নানা অপকর্ম বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত রোববার প্রথম রোজার দিন সন্ধ্যার পূর্ব মূহুর্তে অরূয়াইল বাজার সংলগ্ন বিল্লাল মিয়ার বাড়িতে ১০-১২ জনের একটি দল দেদারছে খেলছে জুয়া। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এস আই মো. মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দরজা জানালা দিয়ে লাফিয়ে পড়ে অনেক জুয়ারি আহত হয়। তারপরও অনেকেই পালিয়ে যায়। ধস্তাধস্তি করে পুলিশ অরূয়াইল গ্রামের জুয়ারি শফিকুল (৪০), মাহাবুব (২৭) ও পাকশিমুলের মুলফত আলীকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেন। এসময় গ্রেপ্তারকৃত জুয়ারিদের ছিনিয়ে নিতে পুলিশের উপর হামলা চালায় অন্য জুয়ারিরা। হামলায় আহত হন এস আই মিজানুর রহমান ও এ এস আই সামছু। আহত হওয়ার পরও আসামী ছাড়েননি পুলিশ। তারা দু’জনই সরাইল হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আসলাম হোসেন বলেন, মাদক জুয়ার সাথে কোন ধরণের আপোষ নেই। হামলা চালিয়ে আসামী ছিনতাইয়ের চেষ্টা ও পুলিশকে যারা আহত করেছে আইন তাদেরকেও ছাড়বে না। এ কাজে সফল হতে সরকারি কর্মকর্তা ও সমাজ সচেতন ব্যক্তিদের সহযোগিতা খুবই প্রয়োজন।

মাহবুব খান বাবুল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here