Dhaka 6:37 am, Sunday, 23 June 2024
News Title :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বৃক্ষরোপণ ও বিতরণ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পে ১ হাজার মানুষকে চিকিৎসা সেবা প্রদান টাউনখাল কচুরিপানা পরিস্কার পরিছন্নতা অভিযানে তরী বাংলাদেশের বড়াইল হোসাইনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯৭ ব্যাচের মিলন মেলা ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন মামলার বাদী, ইউপি সদস্যসহ ৫ জন কারাগারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট গরু কোরবানী করে দরিদ্রদের মাঝে মাংশ বিতরণ অপরিকল্পিতভাবে জলাধার ভরাট করায় লক্ষাধিক লোক পানিবন্দী আবেশের উদ্যোগে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান মেধাবী আমেনার বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি স্বপ্নপূরণে এগিয়ে এলেন সাবেক ব্রিটিশ সেনা শওকত আজাদ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়“ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২৪” এর উদ্বোধন

পরিমল ভৌমিক এর ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত।

  • Reporter Name
  • Update Time : 02:10:57 pm, Tuesday, 1 August 2023
  • 134 Time View

মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত

পেশায় শিক্ষক হয়ে পড়ন্ত বয়সেও পরিমল ভৌমিকের গীতিশীল লেখালেখি তরুণ লেখকদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগাবে।——- কবি ও গীতিকার মো. আ. কুদ্‌দূস

রম্য লেখক, ভৌতিক গল্পকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবে পরিমল ভৌমিক ইতোমধ্যে পাঠক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন। —–কবি ও গবেষক জয়দুল হোসেন

গোকর্ণঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুপরিচিত রম্য লেখক, নাট্যব্যক্তিত্ব ও ঔপন্যাসিক পরিমল ভৌমিক-এর নতুন বই ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩১ জুলাই ২০২৩, সোমবার বিকালে চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগারের আয়োজনে জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের হল রুমে উক্ত মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগার এর সভাপতি, কথাসাহিত্যিক আমির হোসেন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অদ্বৈত মল্লবর্মণ স্মৃতি গ্রন্থাগার ও গবেষণা কেন্দ্র, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-এর প্রতিষ্ঠাতা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, বিশিষ্ট কবি ও গীতিকার মো. আ. কুদ্‌দূস। সভায় মুখ্য আলোচক ছিলেন সাহিত্য একাডেমির সভাপতি, কবি ও গবেষক জয়দুল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের সহকারী পরিচালক, লেখক, প্রাবন্ধিক সাইফুল ইসলাম লিমন, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক (সিলেট অঞ্চল), বাচিকশিল্পী ও সাংবাদিক মোঃ মনির হোসেন। সভায় ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের উপর বিষয় ভিত্তিক আলোচনা করেন সাহিত্য একাডেমির সহ-সভাপতি কবি ও কথাসাহিত্যিক এড. মানিক রতন শর্মা, তিতাস সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদ এর উপদেষ্টা, কবি ও গীতিকার মোঃ আব্দুর রহিম, আশুগঞ্জ ফিরোজ মিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক, বঙ্গ কথার সম্পাদক কবি এম.এ হানিফ, জেলা পাবলিক লাইব্রেরির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মমিনুল আলম বাবু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া কবি পরিষদের সভাপতি, কবি ও গল্পকার শৌমিক ছাত্তার। ঝিলমিল একাডেমির পরিচালক, কিচিরমিচির-সম্পাদক মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ-এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এর হৃদ্‌রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মোঃ আব্দুল মতিন (সেলিম), উদীচী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি, ফারুক আহমেদ ভুঁইয়া, এএমটিভি নিউজ বাংলার বার্তা সম্পাদক কবি রুদ্র মোঃ ইদ্রিস, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কবি ও গল্পকার শিরিন আক্তার, প্লাটফর্ম সম্পাদক প্রকাশক-সম্পাদক কবি হেলাল উদ্দিন হৃদয়, পৌরসভার বাজার পরির্দশক কবি এড. হুমায়ন কবির, পিস ভিশন এর সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, সাহিত্য একাডেমির সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য নেলী আক্তার, নদী বিষয়ক সংগঠন তরীর জেলা কমিটির সদস্য খালেদা মুন্নি, কবি ও শিক্ষক মো. আমিনুল ইসলাম, মোনোয়ারা-হাকিম হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ শাহিদ। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লায়ন মো. ফয়জুল কবির, জামিনুর রহমান, কবি শাদমান সাহিদ, কবি রোকেয়া রহমান কেয়া, মিসেস আমির হোসেন, ছড়াকার রিপন দেবনাথ, ছড়াকার শরিফ উদ্দিন, ছড়াকার শরিফ সরকার, কবি মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, কবি ইউনুস সরকার, কবি খোকন সেন, কবি জুয়েনা আক্তার, আবৃত্তি শিল্পী সুজন সরকার, আবৃত্তি শিল্পী আতিকুল ইসলাম সুজন, আবৃত্তি শিল্পী মোজাম্মেল হক, নাহিদুল আহসাব অনিক প্রমুখ ছাড়াও জেলার সাহিত্য-সংস্কৃতি ও সামাজিক সংগঠনের বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সভায় আলোচক ও বক্তাগণ রাক্ষুসে বিলাপ উপন্যাসের কাল্পনিকতা বনাম বাস্তবধর্মিতা, চরিত্র সৃষ্টি ও চরিত্র বিশ্লেষণ, প্রকৃতি ও স্থান বর্ণনা, কাহিনি নির্বাচন, উপন্যাস হিসেবে রাক্ষুসে বিলাপ এর সার্থকতা বনাম ব্যর্থতার পর্যালোচনা, উপন্যাসের নামকরণের সার্থকতা, শিক্ষক পরিমল ভৌমিক বনাম লেখক পরিমল ভৌমিক, ঔপন্যাসিক হিসেবে পরিমল ভৌমিকের সার্থকতা স্বরূপ নিরূপণ এবং লেখক পরিমল ভৌমিক- তাঁকে যেমন দেখেছি- ইত্যাদি বিষয়ে বিষয়ভিত্তিক গঠনমূলক আলোচনা-সমালোচনা করেন। সভায় বক্তগণ বলেন,গোকর্ণঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, রম্য লেখক, নাট্যকার ঔপন্যাসিক পরিমল ভৌমিক। পেশাগত জীবনে তিনি একজন সফল শিক্ষক। শিক্ষকতা পেশার বাইরেও তিনি একজন সুপরিচিত ও প্রতিভাবান লেখক। সহজ সরল সাবলীল ভাষায় তিনি ফুঁটিয়ে তোলেন নানা চরিত্র ও কাহিনি। রম্য লেখক, ভৌতিক গল্পকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবে ইতোমধ্যে তিনি পাঠক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন।

বক্তগণ আরো বলেন, শ্রদ্ধেয় পরিমল ভৌমিক স্যার একজন নির্ভেজাল ও সৎ মানুষ। তিনি একজন নিবেদিতপ্রাণ সাহিত্য ও সংস্কৃতিকর্মী। তিনি একজন সজ্জন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে আমাদের সকলের হৃদয়ে তিনি স্থায়ী আসন গেড়ে নিয়েছেন। তিনি প্রতিবছর নিজের জন্মদিন পালন না করে প্রতিবছর অন্তত একটি নিজের একটি বইয়ের জন্মদিন পালন করবেন বলে স্থির করেছেন। পেশায় শিক্ষক হয়ে পড়ন্ত বয়সেও পরিমল ভৌমিকের গীতিশীল লেখালেখি তরুণ লেখকদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগাবে।

সভায় অনুভূতি প্রকাশ করে পরিমল ভৌমিক বলেন, সখের বশে লেখালেখি শুরু করেছিলাম তা এখন নেশায় পরিণত হয়েছে। একজন শিক্ষক হিসেবে আমার দেখা জীবনের নানা চরিত্র ও ঘটনাকে লিপিবদ্ধ করার চেষ্টা করি। আমি ভালো লিখছি বা খারাপ লিখছি তা পাঠক মূল্যায়ন করবে। সকলের উৎসাহ ও সহযোগিতা পেলে আমি আরো ভালো ভালো লেখা উপহার দিতে চাই। সবাই আমার জন্য আশীর্বাদ করবেন।

উল্লেখ্য ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ পরিমল ভৌমিক ভৌমিকের প্রকাশিত সপ্তম বই (দ্বিতীয় উপন্যাস)। তাঁর বেশ প্রকাশিত অন্যান্য গ্রন’ সমূহ হলো- বহু রূপি ভূত (২০০৮) দৈত্য দানব ভূত (২০০৯), ১০টি রম্য রচনা (২০১০), ‘নাম ফাটুক-মনে কিছু কইরেন না’ (রম্য রচনা-২০২০), ভৌতিক গল্প ‘ভূত গবেষণা ইনস্টিটিউট’ (২০২১) ‘কাহিনির শেষ পাতায়’ (উপন্যাস-২০২২) ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ (উপন্যাস-২০২৩) বইগুলো প্রকাশ করেছে জ্ঞানজ্যোতি প্রকাশনী, ঢাকা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বৃক্ষরোপণ ও বিতরণ করেছে জেলা আওয়ামী লীগ

fapjunk
© All rights reserved ©
Theme Developed BY XYZ IT SOLUTION

পরিমল ভৌমিক এর ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত।

Update Time : 02:10:57 pm, Tuesday, 1 August 2023

পেশায় শিক্ষক হয়ে পড়ন্ত বয়সেও পরিমল ভৌমিকের গীতিশীল লেখালেখি তরুণ লেখকদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগাবে।——- কবি ও গীতিকার মো. আ. কুদ্‌দূস

রম্য লেখক, ভৌতিক গল্পকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবে পরিমল ভৌমিক ইতোমধ্যে পাঠক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন। —–কবি ও গবেষক জয়দুল হোসেন

গোকর্ণঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুপরিচিত রম্য লেখক, নাট্যব্যক্তিত্ব ও ঔপন্যাসিক পরিমল ভৌমিক-এর নতুন বই ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩১ জুলাই ২০২৩, সোমবার বিকালে চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগারের আয়োজনে জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের হল রুমে উক্ত মোড়ক উন্মোচন ও পাঠ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

চেতনায় স্বদেশ গণগ্রন্থাগার এর সভাপতি, কথাসাহিত্যিক আমির হোসেন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অদ্বৈত মল্লবর্মণ স্মৃতি গ্রন্থাগার ও গবেষণা কেন্দ্র, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-এর প্রতিষ্ঠাতা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, বিশিষ্ট কবি ও গীতিকার মো. আ. কুদ্‌দূস। সভায় মুখ্য আলোচক ছিলেন সাহিত্য একাডেমির সভাপতি, কবি ও গবেষক জয়দুল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের সহকারী পরিচালক, লেখক, প্রাবন্ধিক সাইফুল ইসলাম লিমন, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক (সিলেট অঞ্চল), বাচিকশিল্পী ও সাংবাদিক মোঃ মনির হোসেন। সভায় ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ উপন্যাসের উপর বিষয় ভিত্তিক আলোচনা করেন সাহিত্য একাডেমির সহ-সভাপতি কবি ও কথাসাহিত্যিক এড. মানিক রতন শর্মা, তিতাস সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদ এর উপদেষ্টা, কবি ও গীতিকার মোঃ আব্দুর রহিম, আশুগঞ্জ ফিরোজ মিয়া সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক, বঙ্গ কথার সম্পাদক কবি এম.এ হানিফ, জেলা পাবলিক লাইব্রেরির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মমিনুল আলম বাবু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া কবি পরিষদের সভাপতি, কবি ও গল্পকার শৌমিক ছাত্তার। ঝিলমিল একাডেমির পরিচালক, কিচিরমিচির-সম্পাদক মনিরুল ইসলাম শ্রাবণ-এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এর হৃদ্‌রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মোঃ আব্দুল মতিন (সেলিম), উদীচী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি, ফারুক আহমেদ ভুঁইয়া, এএমটিভি নিউজ বাংলার বার্তা সম্পাদক কবি রুদ্র মোঃ ইদ্রিস, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কবি ও গল্পকার শিরিন আক্তার, প্লাটফর্ম সম্পাদক প্রকাশক-সম্পাদক কবি হেলাল উদ্দিন হৃদয়, পৌরসভার বাজার পরির্দশক কবি এড. হুমায়ন কবির, পিস ভিশন এর সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, সাহিত্য একাডেমির সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য নেলী আক্তার, নদী বিষয়ক সংগঠন তরীর জেলা কমিটির সদস্য খালেদা মুন্নি, কবি ও শিক্ষক মো. আমিনুল ইসলাম, মোনোয়ারা-হাকিম হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ শাহিদ। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লায়ন মো. ফয়জুল কবির, জামিনুর রহমান, কবি শাদমান সাহিদ, কবি রোকেয়া রহমান কেয়া, মিসেস আমির হোসেন, ছড়াকার রিপন দেবনাথ, ছড়াকার শরিফ উদ্দিন, ছড়াকার শরিফ সরকার, কবি মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, কবি ইউনুস সরকার, কবি খোকন সেন, কবি জুয়েনা আক্তার, আবৃত্তি শিল্পী সুজন সরকার, আবৃত্তি শিল্পী আতিকুল ইসলাম সুজন, আবৃত্তি শিল্পী মোজাম্মেল হক, নাহিদুল আহসাব অনিক প্রমুখ ছাড়াও জেলার সাহিত্য-সংস্কৃতি ও সামাজিক সংগঠনের বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সভায় আলোচক ও বক্তাগণ রাক্ষুসে বিলাপ উপন্যাসের কাল্পনিকতা বনাম বাস্তবধর্মিতা, চরিত্র সৃষ্টি ও চরিত্র বিশ্লেষণ, প্রকৃতি ও স্থান বর্ণনা, কাহিনি নির্বাচন, উপন্যাস হিসেবে রাক্ষুসে বিলাপ এর সার্থকতা বনাম ব্যর্থতার পর্যালোচনা, উপন্যাসের নামকরণের সার্থকতা, শিক্ষক পরিমল ভৌমিক বনাম লেখক পরিমল ভৌমিক, ঔপন্যাসিক হিসেবে পরিমল ভৌমিকের সার্থকতা স্বরূপ নিরূপণ এবং লেখক পরিমল ভৌমিক- তাঁকে যেমন দেখেছি- ইত্যাদি বিষয়ে বিষয়ভিত্তিক গঠনমূলক আলোচনা-সমালোচনা করেন। সভায় বক্তগণ বলেন,গোকর্ণঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, রম্য লেখক, নাট্যকার ঔপন্যাসিক পরিমল ভৌমিক। পেশাগত জীবনে তিনি একজন সফল শিক্ষক। শিক্ষকতা পেশার বাইরেও তিনি একজন সুপরিচিত ও প্রতিভাবান লেখক। সহজ সরল সাবলীল ভাষায় তিনি ফুঁটিয়ে তোলেন নানা চরিত্র ও কাহিনি। রম্য লেখক, ভৌতিক গল্পকার ও ঔপন্যাসিক হিসেবে ইতোমধ্যে তিনি পাঠক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন।

বক্তগণ আরো বলেন, শ্রদ্ধেয় পরিমল ভৌমিক স্যার একজন নির্ভেজাল ও সৎ মানুষ। তিনি একজন নিবেদিতপ্রাণ সাহিত্য ও সংস্কৃতিকর্মী। তিনি একজন সজ্জন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে আমাদের সকলের হৃদয়ে তিনি স্থায়ী আসন গেড়ে নিয়েছেন। তিনি প্রতিবছর নিজের জন্মদিন পালন না করে প্রতিবছর অন্তত একটি নিজের একটি বইয়ের জন্মদিন পালন করবেন বলে স্থির করেছেন। পেশায় শিক্ষক হয়ে পড়ন্ত বয়সেও পরিমল ভৌমিকের গীতিশীল লেখালেখি তরুণ লেখকদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগাবে।

সভায় অনুভূতি প্রকাশ করে পরিমল ভৌমিক বলেন, সখের বশে লেখালেখি শুরু করেছিলাম তা এখন নেশায় পরিণত হয়েছে। একজন শিক্ষক হিসেবে আমার দেখা জীবনের নানা চরিত্র ও ঘটনাকে লিপিবদ্ধ করার চেষ্টা করি। আমি ভালো লিখছি বা খারাপ লিখছি তা পাঠক মূল্যায়ন করবে। সকলের উৎসাহ ও সহযোগিতা পেলে আমি আরো ভালো ভালো লেখা উপহার দিতে চাই। সবাই আমার জন্য আশীর্বাদ করবেন।

উল্লেখ্য ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ পরিমল ভৌমিক ভৌমিকের প্রকাশিত সপ্তম বই (দ্বিতীয় উপন্যাস)। তাঁর বেশ প্রকাশিত অন্যান্য গ্রন’ সমূহ হলো- বহু রূপি ভূত (২০০৮) দৈত্য দানব ভূত (২০০৯), ১০টি রম্য রচনা (২০১০), ‘নাম ফাটুক-মনে কিছু কইরেন না’ (রম্য রচনা-২০২০), ভৌতিক গল্প ‘ভূত গবেষণা ইনস্টিটিউট’ (২০২১) ‘কাহিনির শেষ পাতায়’ (উপন্যাস-২০২২) ‘রাক্ষুসে বিলাপ’ (উপন্যাস-২০২৩) বইগুলো প্রকাশ করেছে জ্ঞানজ্যোতি প্রকাশনী, ঢাকা।