প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

0
57
আইন না মেনে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কেন অবৈধ ঘোষণা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।
১৬ জন নিয়োগ প্রার্থীদের পক্ষে করা এক রিটে মঙ্গলবার শুনানি নিয়ে শেষে হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর ও রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।
আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. কামাল হোসেন। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার লোমত আরা চৌধুরী। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।
নিয়োগে ২০১৩ সালের শিক্ষক নীতিমালা অনুসরণ না করায় হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। এর আগে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে গত ২৪ ডিসেম্বর নিয়োগের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হয়।
২০১৯ সালের ৩০শে জুলাই সহকারী শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। পরে ওই বছরের ১ থেকে ৩০শে আগস্ট পর্যন্ত সারাদেশ থেকে ২৪ লাখ ৫ জন প্রার্থী আবেদন করেন। প্রথম ধাপে ২৪শে মে, দ্বিতীয় ধাপে ৩১শে মে, তৃতীয় ধাপে ২১শে জুন এবং চতুর্থ ধাপে ২৮শে জুন লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেপ্টেম্বরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ লিখিত পরীক্ষায় ৫৫ হাজার ২৯৫ জন পাস করেন। গত ৬ই অক্টোবর থেকে নিয়োগ পরীক্ষার মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয়।
আগামী, ১৬ই ফেব্রুয়ারি নতুন শিক্ষকদের জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে যোগদান করতে বলা হয়েছে। ১৭ থেকে ১৯শে ফেব্রুয়ারি তাদের পরিচিতিপর্ব অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। আর ১৯শে ফেব্রুয়ারি নতুন নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের পদায়নের আদেশ জারি করা হবে। এমন সময় হাইকোর্ট এ বিষয়ে রুল জারি করলেন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে