মাহবুব খান বাবুল:
সরাইলে যাত্রীবাহী চলন্ত বাস থেকে পড়ে চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেল নুরূজ্জামান (২৮) নামের এক হেলপারের। গতকাল বুধবার সকাল ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সরাইলের ইসলামাবাদ এলাকায় এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত নুরূজ্জামান ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার রামরাইল ইউনিয়নের ভোলাচং গ্রামের আফরোজ মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল সকালে মাধবপুর থেকে ছেড়ে আসা দিগন্ত পরিবহনের খুশি নামের যাত্রীবাহী বাসটি (কুমিল্লা-ব-০৫-০০৪৭) বাহ্মণবাড়িয়া সদরের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মহাসড়কের সরাইলের ইসলামাবাদ এলাকায় আসার পর হাত ফসকে সড়কে পড়ে যায় বেপরোয়া গতির ওই বাসটির হেলাপারের দায়িত্বে থাকা নুরূজ্জামান। পড়ার পরই তার মাথার উপর দিয়ে যায় বাসের চাকা। এতে মাথা থেঁতলে যায় নুরূজ্জামানের। ঘটনাস’লেই তার মৃত্যু হয়। হাইওয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। বাসটিও রয়েছে পুলিশ হেফাজতে। অন্য একটি সূত্র জানায়, এই দূর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে সড়কের কিছু দালাল ও কথিত সাংবাদিক। তারা মহাসড়কে নিষিদ্ধ সিএনজি চালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীর চাপে এ দূর্ঘটনা ঘটেছে এমনটি প্রচারের চেষ্টা করছেন। অটো খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহজালাল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দিগন্ত পরিবহনের ওই বাসটি আটক করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here