বুধবার , ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ময়লায় দূষিত হচ্ছে পরিবেশ, দখল হচ্ছে তিতাস নদী

 ময়লায় দূষিত হচ্ছে পরিবেশ, দখল হচ্ছে তিতাস নদী

ডিঃব্রাঃ ডেস্কঃ
নবীনগরে তিতাস ও বুড়ি নদীতে প্রতিনিয়ত ফেলা হচ্ছে পৌরসভার বাসা-বাড়ির ময়লা-আর্বজনা। আর সেই আবর্জনা ফলে দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। ময়লার কারলে নদীর পানি দূষণের ফলে সৃষ্টি হচ্ছে বিভিন্ন সস্যার । বাতাসে ভেসে আসছে প্রচন্ড দুর্গন্ধ । সেই দুর্গন্ধের কারণে নাক চেপে চলতে হচ্ছে পথচারী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সৃষ্টি হচ্ছে নানান সমস্যা ।

নদীর পাড়ে ফেলা সে বর্জ্যের উপর বালি দিয়ে দোকান তৈরী করে দখল করছে জায়গা ও দোকান ঘর ভাড়া দিচ্ছেন এলাকার কিছু প্রভাবশালীরা এভাবে দিনের পর দিন অবৈধ দখল ও ময়লা আবর্জনা ফেলার কারণে মৃতপ্রায় এক সময়ের খরস্রোতা তিতাস ও বুড়ি নদী ।

প্রতিনিয়ত এসব বর্জ্য ফেলায় বিলীন হয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী তিতাস ও বুড়ি নদী। এ বিষয়ে রহস্যজনক কারণে নবীনগর পৌরসভা নির্বিকার রয়েছে । সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নবীনগর পৌরসভার পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদী গুলোর মধ্যে তিতাস ও বুড়ি নদী অন্যতম। সেই তিতাস ও বুড়ি নদীকে কেন্দ্র করেই গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়ীক স্থান হিসেবে গড়ে উঠেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার পৌর এলাকার এই বাজারটি ।

প্রতিদিন নিয়ম করেই নবীনগর পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরা তাদের সংগৃহীত ময়লা সহ নবীনগর সদর বাজারের ফল, হোটেল, মুদি, ব্যবসায়ীরা বসত বাড়ির ময়লা বোঝাই করে দূষিত বর্জ্য ফেলছেন তিতাস ও বুড়ি নদীতে । এই নদীর পারে ময়লা ফেলার কারনে নদী ভরাট হয়ে নদীর পাড় ঘিরে গড়ে উঠেছে নতুন নতুন অবৈধ দখলের স্থাপনা। এভাবে অবৈধ দখল আর দুষণ হলে এক সময় তিতাস ও বুড়ি নদীর অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যাবে না ।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায় একসময় নদীর পাড় সকাল বিকাল মানুষজন হাঁটাচলা করতো আড্ডা দিতো। বিশেষ করে বর্ষাকালে সুন্দর একটা পরিবেশ ছিল । স্থানীয় প্রভাবশালীদের দাপটে এ নদীর অস্তিত্ব এখন বিলিন হওয়ার পথে ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীনগর পৌরসভার মেয়র এড. শিব শংকর দাস বলেন, তিতাস নদীর পার পরিচ্ছন্ন রাখতে আমাদের পৌরসভার পক্ষ থেকে নদীর পাড়ের বিভিন্ন পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে । যে জায়গা গুলিতে সিসি ক্যামেরা নেই বাজারের কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা সেখানে ময়লা ফেলছেন প্রতিনিয়ত। দখলদাররা নদীর পাড় দখল করে সুবিধা করতে পারবেন না , অল্প কিছু দিন বাদেই নদীর পাড় দিয়ে সড়ক তৈরী হবে। তিতাস নদী সুরক্ষায় নবীনগর পৌরসভা কাজ করছে।

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *