বৃহস্পতিবার , ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মারা যাওয়ার ২০ মাস পর শেষ ইচ্ছে পূরণে প্রবাসীর মরদেহ দেশে এনে দাফন

 মারা যাওয়ার ২০ মাস পর শেষ ইচ্ছে পূরণে প্রবাসীর মরদেহ দেশে এনে দাফন

 

 

আরিফ মিয়া (৩০) নামের এক যুবককে সৌদি আরবে মারা যাওয়ার ২০ মাস পর দেশে এনে দাফন করা হয়েছে। বিশেষ ব্যবস্থায় রাখা প্রবাসী আরিফের মরদেহ নিজ বাড়িতে এসে পৌঁছায়। এসময় এক হৃদয়বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। তিনি শহরের কাজিপাড়া এলাকার মৃত জালু মিয়ার ছেলে। বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের উত্তর মৌড়াইল কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়।

প্রবাসী আরিফের বড় ভাই মো. আবু সালেক জানান, দেশে কনফেকশনারি ব্যবসা করতো আরিফ। সে এক ছেলে ও দুই মেয়ের জনক। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে আরিফ সৌদি আরবে পাড়ি জমায়। সেখানে
হাইল নামক এলাকায় একটি কোম্পানিতে কাজ শুরু করে। যাওয়ার আড়াই মাস পর অতিরিক্ত ডায়াবেটিসসহ নানা রোগে আক্রান্ত হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে আরিফ মারা যান।

তিনি আরও জানান, মৃত্যুর আগে আরিফের শেষ ইচ্ছে ছিল মারা গেলে তাকে যেন বাড়িতে এনে কবর দেওয়া হয়। আমরা মৃত্যুর খবর জেনে সৌদি আরবে তার কোম্পানির সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখি,
যেন দেশে এনে তাকে দাফন করা হয়। কিন্তু করোনার কারণে জটিলতায় আরিফের মরদেহ দেশে আনা যাচ্ছিল না। প্রায় ২০ মাস ধরে সৌদি আরবের হাসপাতাল মর্গে বিশেষ ব্যবস্থায় রাখা ছিল তার
মরদেহ।

আবু সালেক আরও জানান, বাদ জোহর শহরের উত্তর মৌড়াইল কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এ কবরস্থানেই গত পাঁচদিন আগে আমাদের বড় ভাই শাহ আলমকে দাফন করা হয়েছে।

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *