ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিভিন্নস্থানে পৃথক অভিযানে ৬ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

0

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৪৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১৮ কেজি গাঁজা, ৮০ বোতল ফেন্সিডিল,৩০৫ বোতল ইস্কফ ও ৫ লিটার ভারতীয় মবিল, মাদক বিক্রয়ের নগদ ৩ হাজার ৩২০ টাকা, ৫০০ পিস ভারতীয় বেটনোবেট ক্রিম, ১৮৫০ পিস ভারতীয় পন্ডস্ পাউডারসহ ছয় মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব ও বিজিবির সদস্যরা।

রোববার সকালে জেলার আশুগঞ্জের টোল প্লাজা ও শনিবার বিকেলে রাতে জেলার বিজয়নগর,আখাউড়া এবং কসবা উপজেলার বিভিন্নস্থানে পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় মাদকদ্রব্যবাহী একটি পিকআপ ও একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ময়মনসিংহ জেলার বলাসপুর (নয়াপাড়া) গ্রামে মোন্তা মিয়া-(২৫), একই জেলার চর-কালীবাড়ি গ্রামের সেলিম মিয়া-(৩০), হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার আফজালপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলী-(৩৪) ও একই উপজেলার বাণেশ্বরপুর গ্রামের শাখাওয়াত হোসেন-(২৮),ঢাকার খিলগাঁও থানার ত্রিমোহনী এলাকার মুন্না হোসেন-(২৮) এবং তার স্ত্রী বিলকিস বানু-(২৫)।

রোববার দুপুরে র‌্যাব-১৪ এর ভৈরব ক্যাম্প থেকে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৪-এর ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়েরের নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা রোববার সকালে আশুগঞ্জের টোলপ্লাজায় একটি পিকআপ আটক করে। পরে পিকআপে তল্লাশী চালিয়ে ১৬ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী মোন্তা মিয়া ও সেলিম মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

এসময় র‌্যাব পিকআপটিকেও জব্দ করে। অপর অভিযানে র‌্যাব সদস্যরা শনিবার রাতে আশুগঞ্জ টোলপ্লাজায় একটি প্রাইভেটকার আটক করে। পরে প্রাইভেটকার তল্লাশী করে ৮০ বোতল ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী ও শাখাওয়াত হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে আশুগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অপর দিকে বিজিবির ২৫ ব্যাটালিয়নের ( সরাইল ব্যাটালিয়ন) এর সদস্যরা শনিবার বিকেলে জেলার বিজয়নগর, কসবা ও আখাউড়া উপজেলার বিভিন্নস্থানে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৪৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩০৫ বোতল ভারতীয় ইস্কফ, ১ কেজি ৮শত গ্রাম গাঁজা, ৫ লিটার ভারতীয় মবিল,৫০০ পিস ভারতীয় বেটনোবেট ক্রিম ও ১৮৫০ পিস ভারতীয় পন্ডস্ পাউডারসহ মাদক ব্যবসায়ী মুন্না হোসেন ও তার স্ত্রী বিলকিস বানুকে গ্রেপ্তার করে। রোববার সকালে এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সরাইল ব্যাটালিয়ন (২৫ বিজিবি) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ মিজানুর রহমান। এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে বিজয়নগর, কসবা ও আখাউড়া থানায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে