বিজয়নগরে ৪ বছরের সন্তান রেখে প্রবাসীর স্ত্রী ৪ দিন ধরে উধাও

0

ডিঃব্রাঃ ডেস্কঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার সিংগারবিল ইউনিয়ন এলাকার মুরাদনগর গ্রামে ঝুঁমা আক্তার (২৬) নামে এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী তাঁর ৪ বছরের ছেলে সন্তানকে ফেলে রেখে ৪ দিন ধরে উধাও রয়েছেন। তার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। নিখোঁজ প্রবাসীর স্ত্রী ঝুঁমা আক্তার সিংগারবিল ইউপির আলীনগরের মুরাদনগর গ্রামের ফারুক মিয়ার কন্যা।


নিখোঁজ ঝুঁমা আক্তারের স্বামীর বাড়ির লোকজন সাংবাদিকদের জানান, গত ২৬ শে আগস্ট দুপুরে গৃহবধূ ঝুঁমা আক্তার সিংগারবিল বাজারে সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের উদ্দেশ্যে তাঁর বাবার বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর আর বাড়ি ফিরেনি প্রবাসীর সুন্দরী স্ত্রী ঝুঁমা আক্তার। উধাও হওয়া প্রবাসীর স্ত্রী ঝুঁমা আক্তারের বাপের বাড়ির লোকজনও তার কোন সন্ধান পাচ্ছেন না বলে জানাায়।

এ বিষয়ে বিজয়নগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন প্রবাসীর স্ত্রী ঝুঁমা আক্তারের পিতা মোঃ ফারুক মিয়া। নিখোঁজ ঝুঁমা আক্তারের শশুর বাড়ির লোকজন সাংবাদিকদের জানান, তার স্বামী বিয়ের পর জীবিকার তাগিদে সৌদি আরবে প্রবাসে চলে যান। তাদের ৪ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। স্বামী প্রবাসে থাকার সুযোগে গৃহবধূ ঝুঁমা আক্তার প্রায় সময়ই মোবাইলের ইন্টারনেটে অন্য যুবকের সাথে যোগাযোগ করতেন। ৩ থেকে ৪ টি মোবাইল ফোন ব্যবহার করতেন ঐ গৃহবধূ ঝুঁমা আক্তার।

প্রবাসীর ছোট ভাই সাংবাদিকদের জানান, আমার ভাই সৌদি আরব থাকাকালে অটেল টাকা পয়সা দিয়েছেন তার স্ত্রী ঝুঁমা আক্তারকে। করোনার কারণে ভাই দেশে ফিরে আসেন। তার অর্থনেতিক অবস্থাও এখন কিছুটা খারাপ।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সিংগারবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুল ইসলাম ভুইয়া সাংবাদিকদের জানান, স্বামীর বাড়ি ও মেয়ের বাড়ি একই এলাকায়। চেয়ারম্যান জানান, মেয়েটি গত ২৬ শে আগস্ট তার বাবার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন বলে আমাকে জানিয়েছেন ছেলের পক্ষ ও মেয়ের পক্ষের লোকজন। ঝুঁমা আক্তার নামে নিখোঁজ হওয়া প্রবাসীর স্ত্রীর আজও পর্যন্ত কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে