বৃহস্পতিবার , ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিজিডি’র জামানতের টাকা আত্নসাতের অভিযোগ শরীফপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

 বিজিডি’র জামানতের টাকা আত্নসাতের অভিযোগ শরীফপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

ডিঃব্রাঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে শরীফপুর ইউনিয়নে ভিজিডি কার্ডধারীদের জামানতের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে শরীফপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে। সেই টাকা ফেরত পেতে গত ৭ অক্টোবর আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

লিখিত অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে শরীফপুর ইউনিয়ন এর বিশেষ চাহিদাগ্রস্থ ব্যক্তিরা দুই বছরের জন্য প্রতিমাসে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বিজিডির চাল পান। চাল নেওয়ার সময় প্রতিমাসে নিয়ম অনুযায়ী প্রতি জনের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে জামানত রাখা হয়। দুই বছরের এই ভিজিডি চক্র শেষ হবার ১৫ দিন পর চাল গ্রহীতাদের সেই টাকা ফেরত দেওয়ার নিয়ম। প্রতিজনের মাসে ২০০ টাকা করে হলে দুই বছরে ৪৮০০ টাকা হয়। ১৫ দিন পর সেই জামানতের টাকা ফেরত দেওয়ার কথা থাকলেও ২ বছরেও তা ফেরত দিচ্ছেনা চেয়ারম্যান। এবিষয়ে চেয়ারম্যানের কাছে টাকা চাইতে গেলে তিনি খারাপ ব্যবহার করেন। তিনি বলেন, “চাল পেয়েছো আবার টাকা কিসের? যা পেয়েছো তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকো, নাহলে পরবর্তীতে আর কোন সুযোগ সুবিধা পাবেনা”।

চেয়ারম্যানের কর্মকান্ডে বিরক্ত হয়ে ইউনিয়নের ভিজিডি চাল গ্রহণকারীদের পক্ষে ইউএনও বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছেন ইউনিয়নের ছয় জন ভুক্তভোগী বাসিন্দা।

এবিষয়ে শরীফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমি কারো টাকা মেরে খাইনি। এই টাকা উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কাছে আছে। আমার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ মিথ্যা।

এ ব্যপারে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অরবিন্দ বিশ্বাস বলেন, আমরা এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

মোঃনিয়ামুল ইসলাম আকন্ঞ্জিঃ

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *