ব্রাহ্মণবাড়িয়া আশুগঞ্জ তালশহর পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মহিলা মেম্বারের এজেন্ট হওয়া নিয়ে প্রেমিকের সামনে বিষপান করে রুনা আখতার (১৯) নামের এক কলেজ শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার (৭ জানুয়ারী) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ময়নাতদন্তের পর নিহতের পরিবারের কাছে লাশটি হস্তান্তর করেন পুলিশ। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে তালশহর গ্রামের তালশহর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার কথিত প্রেমিক রুবেল আহমেদ (২৫) কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে সদর মডেল থানায় নেওয়া হয়েছে। রুনা (১৯) উপজেলার তালশহর পশ্চিম ইউনিয়নের তালশহর গ্রামের খতিব বাড়ির রফিকুল ইসলামের মেয়ে। আটককৃত রুবেল আহমেদ (২৫) তালশহর পশ্চিম ইউনিয়ন তালশহর গ্রামের লাড্ডু বাড়ির লালু মিয়ার ছেলে। রুনার বড়বোন হাবিবা জানান, দেড় বছর হলো রুবেল ও রুনার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। রুনা গত ৫ জানুয়ারী তালশহর পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১,২,৩ ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার মাসুমা বেগমের সমর্থনে এজেন্টে ছিল। নির্বাচনের আগেরদিন রাত এসব বিষয় নিয়ে রুবেলের সাথে রুনার কথা-কাটাকাটি হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে দু’জন তালশহর বাজারে গিয়ে দেখা করেন। তারপর এসব বিষয় নিয়ে আবার রুবেলের সাথে রুনার কথা-কাটাকাটি হয়। এ-কারনে রুনা তার প্রেমিকের সাথে অভিমান করে প্রেমিকের সামনেই ইঁদুর মারার বিষ পান করেন। তালশহর বাজার থেকে খবর পেয়ে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে পথি মধ্যে মৃত্যু হয়েছে বলে জানান৷ তিনি আরও বলেন, রুবেল তার ছোটবোনকে প্রায়ই ছোটখাটো বিষয় নিয়ে মানষিক ভাবে নির্যাতন করতো। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে রুনা মহিলা মেম্বারের এজেন্ট হওয়া নিয়ে রুবেল তার বোনকে মেরে ফেলেন। তার বোনের হত্যার সঠিক বিচার দাবি করেন।এদিকে আটক রুবেলের সাথে কথা বলে জানা যায়, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের কারনে গত দু-দিন যাবত রুনার সাথে তার যোগাযোগ ছিলো না। বৃহস্পতিবার তার একবন্ধুর মাধ্যমে জানেন রুনা তালশহর বাজারে কারেন্ট বিল দিতে এসে ইঁদুর মারার বিষ পান করেছে। রুনার বিষপানের কথা শুনে রুবেল দৌঁড়ে যায়। পরে রুনাকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। রুবেলের হাতে টাকা ছিলনা বলে, নিজের মোবাইল ফোনটি ফার্মেসীতে জমা দিয়ে বাকিতে রুনার জন্য ওষুধ কিনেন। কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি করার কিছুক্ষণ পরে রুনা মারা যান। আশুগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক ( তদন্ত) মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হাসপাতালে সূত্রে জেনেছি এক কলেজ শিক্ষার্থী বিষপান করে আত্নহত্যা করেছে। কথিত প্রেমিক রুবেল আহমেদকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে সদর মডেল থানায় নিয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য রুনার লাশ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মোঃনিয়ামুল ইসলাম আকন্ঞ্জি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here