শুক্রবার , ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

তৃণমূলের গোপন ভোটে শীর্ষে মেয়র নায়ার কবির

 তৃণমূলের গোপন ভোটে শীর্ষে মেয়র নায়ার কবির

ডিঃব্রাঃ ডেস্কঃ
আওয়ামী লীগের গঠনতান্ত্রিক নিয়ম-নীতি এবং তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী মনোনয়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার লক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর আওয়ামী লীগের তৃণমূলের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার সকাল থেকে দিনব্যাপী জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে এই তৃণমূলের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে পৌর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতে গোপন ভোটের মাধ্যমে পাঁচজনকে মেয়র পদে নৌকা প্রত্যাশী হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, তৃণমূলের গোপন ভোটে শীর্ষ রয়েছেনজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান মেয়র মিসেস নায়ার কবির।
এর আগে সকাল পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে এই তৃণমূলের মতবিনিময় সভার ১ম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন- সরকার। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোঃ মুসলিম মিয়ার সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক এম এ এইচ মাহবুব আলম। এ সময় আওয়ামী লীগের মনোয়ন প্রত্যাশী ২০জন প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী ও দলের প্রতি অনুগত থেকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মেহেদি হাসান লেনিন ও খন্দকার মুরাদুল আবেদীন তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন। পরে তৃণমূলের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির মধ্যে মধ্যে ৬৫ জন ভোট প্রয়োগ করেন। বাকি ৫ জন ভোটার অনুপস্থিত ছিলেন।
বিকালে ২য় অধিবেশনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ১২টি ওয়ার্ডের ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি/ সাধারণ সম্পাদক অর্থাৎ ২৪ জন ভোটার উপস্থিত থেকে মোট ২২ জন ভোটার তাদের ভোট প্রয়োগ করেন। দ্বিতীয় অধিবেশনেও ২ জন প্রার্থী স্থানীয় সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী ও দলের প্রতি অনুগত থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি হাসান সারোয়ার হাসান ও জেলা যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক সুমন রায় (রিটন রায়) তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেন। পরে বাকি ১৬ জন প্রার্থীর মধ্যে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট প্রদান করেন ভোটারগণ। প্রার্থীরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান মেয়র মিসেস নায়ার কবির, সাবেক মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি তাজ মোহাম্মদ ইয়াছিন ও মোঃ হেলাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহবুবুল আলম চৌধুরী খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক সৈয়দ মিজানুর রেজা, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহানুর ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হাজী মাহমুদুল হক ভূইয়া, লন্ডন প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা আবুল ফাতেহ মেজবাহ উদ্দিন, শহর যুবলীগের আহবায়ক আমজাদ হোসেন রনি, শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির চৌধুরী, পৌর আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক আহমেদুল কবির রাজিব, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা অ্যাডভোকেট নাজমুল হক রিটন, মোবাশ্বিরুল ইবাদ ও জেলা যুবলীগ নেতা গোলাম মোস্তফা রাফি।
সভায় আগামী পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ১৬ জন প্রার্থী তাঁদের প্রার্থীতা ঘোষণা করেন। পরে সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫ জনের নাম কেন্দ্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়।

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী যাঁকে মনোনয়ন দেবেন তাঁর পক্ষেই সব প্রার্থী কাজ করবেন বলে অঙ্গীকার করেন।

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *