জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফলে ওরিয়েন্টেশন ও পরিকল্পনা সভায় পৌর মেয়র নায়ার কবির

0

কোনো শিশুই যেন ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়া থেকে বাদ না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে

আগামী ১১ জানুয়ারী, শনিবার জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল বাস-বায়ন করার লক্ষ্যে গতকাল সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মাহবুবুল হুদা সভাকক্ষে পৌরসভা ওরিয়েন্টেশন ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নায়ার কবিরের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ শওকত হোসেন, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ এশনা পাল, পৌর কাউন্সিলর আলহাজ্ব মোঃ ফেরদৌস মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুরাদ খান, আলহাজ্ব মিজানুর রহমান আনছারী, রফিকুল ইসলাম নেহার, খবির উদ্দিন, আব্দুল হাই ডাবলু, সংরক্ষিত কাউন্সিলর হোসনে আরা বাবুল, হালিমা আক্তার, সালমা বেগম, সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র স্বাস’্য শিক্ষা কর্মকর্তা নাজবাহুল ইসলাম, বসি-উন্নয়ন কর্মকর্তা মুখলেছুর রহমান। স্যানিটারী ইন্সপেক্টর রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন পৌরসভার সচিব মোঃ সামছুদ্দিন। সভায় সভাপতির বক্তব্যে পৌর মেয়র নায়ার কবির বলেন, ভিটামিন এ খাওয়ানোর ফলে শিশু যে শুধু রাতকানা থেকে রক্ষা পায়, তা নয়। এ ভিটামিন শিশুদের আরও বহুবিধ উপকার করে। ভিটামিন এ ক্যাপসুল শিশুর জন্য নিরাপদ। শিশুর রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বৃদ্ধি করে, দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে ও শিশুমৃত্যুর হার কমায়। ভিটামিন এ খাওয়ালে পার্শ্ব পতিক্রিয়া হওয়ার তেমন কোন ঝুঁকি নেই। কোনো শিশুই যেন ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়া থেকে বাদ না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তিনি জানান, ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুকে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ৭২টি কেন্দ্রে ৩২ হাজার ১ শত ৫ জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে