রবিবার , ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট খেয়ে সরাইলে ৬ সন্তানের জননীর মৃত্যুর অভিযোগ

 গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট খেয়ে সরাইলে ৬ সন্তানের জননীর মৃত্যুর অভিযোগ

মোহাম্মদ মাসুদঃ সরাইলঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল গর্ভনিরোধক এমএম কিট ট্যাবলেট খেয়ে ৬ সন্তানের জননীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। কাউকে কিছু না জানিয়েই এলাকার গ্রাম্য মহিলা চিকিৎসকের কাছ থেকে ওষুধ এনে মঙ্গলবার (৯ মার্চ) খেয়েছিলেন সোহেদা নামের গর্ভবতী এক মহিলা। কিছুক্ষণ পরই পেটে প্রবল ব্যথা শুরু হয় তার। প্রচুর রক্তক্ষরণও হয়। পরে রাত ৯টায় দিকে হাসপাতালের নিয়ে আসলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ফাইজুর রহমান ফয়েজ সোহেদার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সোহেদা (৩৫) সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের ধরন্তি গ্রামের আনোয়ার মিয়ার স্ত্রী। ওই মহিলার ৬ ছেলেমেয়ে ছিল।

সোহেদার স্বামী আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার পাশের বাড়ির এক মহিলার কাছে থেকে জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসের এমএম কিট ট্যাবলেট এনে খায় তার স্ত্রী। খাওয়ার পর থেকে সোহেদার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। বিকেলে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর সোহেদা মারা গেছেন বলেন ডাক্তার জানান।

ডা. ফাইজুর রহমান ফয়েজ জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে মহিলা মারা গেছেন। এসব গর্ভপাতের ওষুধের জন্য এখন আর গাইনী ডাক্তারের কাছে যাওয়া প্রয়োজন মনে করেন না রোগীরা। যার কারণে সহজেই ফার্মেসির দোকানদারের কাছে গর্ভপাতের ঔষধ চাইলেই তারা এটা দিয়ে দিচ্ছে।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি নাজমুল আলম জানান, ওষুধ খেয়ে কেউ মারা গেছেন বলে জানা নেই। খোঁজ নিয়ে বিস্তারিত জানানো যাবে। এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ পাইনি।

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *