কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ ভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ ও সদর উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচন চলাকালে সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের দতাইসার সরকারী প্রাথমিক ভোটকেন্দ্রে ভাতশালা গ্রামের মোরগ মার্কা বর্তমান মেম্বার বাবুল মিয়ার সমর্থকরা দতাইশার গ্রামের ফুটবল মার্কা শাহিনের ভোটার সমর্থকদের একে অপরের বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ভোট কেন্দ্র থেকে বের করে দিতে চাইলে দু’’পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় লাঠিসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তারা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে ১৫ জন আহত হয়। এ ঘটনায় প্রায় আধাঘন্টা ভোট গ্রহন বন্ধ ছিল। পরে পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। এ ঘটনায় বিজিবি সদস্যরা মেম্বার প্রার্থীরা বাবুল মিয়া মোরগ প্রতিক ও শাহীন মিয়া ফুটবল প্রতীক প্রার্থীকে আটক করলেও পরে মুচলেকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এদিকে মজলিশপুরে আনন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দেয়ার সময় মোঃ বাদশা (২০)কে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালত তাকে ৬ মাসের কারাদন্ড ও ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৫দিনের কারা প্রদান করেন। এছাড়াও তালশহর পূর্ব প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে মোবাইল ফোনসহ ১ জন এজেন্টকে আটক করা হয়। সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে টাকা বিতরনের অভিযোগে মোঃ কারিফ (৩৮) নামে এক পোলিং এজেন্টকে এক মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সামিন সারোয়ার দুপুরে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত কারিফ চেয়ারম্যান প্রার্থী হালিম শাহ লীল মিয়ার ছোট ভাই। তার কাছ থেকে ২৬ হাজার ৮০০ টাকা এবং মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নে পাইকপাড়া গ্রামে অনুমোদন ছাড়া মোটরসাইকেল চালানোর অভিযোগে ইমরানুজ্জামান নামে এক যুবককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ২৫ দিনের কারাদন্ডের আদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নবীনগর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. মোশারফ হোসাইন এ সাজা দেন।

মোঃনিয়ামুল ইসলাম আকন্ঞ্জি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here