সোমবার , ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ,৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কসবায় দৈনিক সমকালের রিপোর্ট নিয়ে সাংবাদিক সোলেমান খানকে প্রাননাশের হুমকী দিলেন যুবলীগ নেতা

 কসবায় দৈনিক সমকালের রিপোর্ট নিয়ে সাংবাদিক সোলেমান খানকে প্রাননাশের হুমকী দিলেন যুবলীগ নেতা

ডিঃব্রাঃ ডেস্কঃ
দৈনিক সমকালে সাবেক কাউন্সিলর আবু তাহেরের অপকর্মের সংবাদ প্রকাশিত হলে কসবা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ,পাক্ষিক সকালের সূর্য পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ও সমকাল প্রতিনিধি মো.সোলেমান খানকে বেইজ্জতি ও প্রাননাশের হুমকী দিলেন কসবা উপজেলা যুবলীগ সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম।এবিষয়ে চারদিন পর সোলেমান খান কসবা থানায় সাধার ডাইরি করে প্রতিকার চেয়েছেন।ডাইরি নং ৪৭৮ তারিখ০৮:০৯:২০২১।

সাধারন ডাইরি ও অন্যান্য সুত্রে জানা যায় গত ৪ সেপ্টেম্বর দৈনিক সমকালের ৬ পৃষ্ঠায়”সাবেক কাউন্সিলর আবু তাহেরের বিরুদ্ধে গণহয়রানীর অভিযোগ” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।এছাড়া গত ৩ সেপ্টেম্বর ৬ পৃষ্ঠায় একই পত্রিকায় “সালিশ সভায় মসজিদ কমিটির সভাপতির মৃত্যু” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন ছাঁপা হয়।এতে ক্ষুব্ধ যুবলীগ সাধারন সম্পাদক শফিক কসবা বাজারে দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার প্রতিনিধি ভজন শংকর আচার্যের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ভজনের সংগে অশালীন ব্যবহার করে এবং সোলেমান খানকে উদ্দেশ্য করে তাঁর অনুপস্হিতিতে গালমন্দ করে এবং বেইজ্জতি করার হুমকী দেয়।

খবর পেয়ে সোলেমান খান মুঠোফোনে জিজ্ঞাসা করলে শফিক ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁকে প্রাণনাশের হুমকী দেয় এবং অশালীন ব্যবহার করে। এবিষয়ে সোলেমান খানের দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বলেন,শফিকের বেয়াদপি ও অশালীন ব্যবহার নিয়ে আমি উপজেলা চেয়ারম্যানকে নালিশ করেছি।তিনি পরদিনই এর বিচার করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে কালক্ষেপণ করে ঢাকা চলে যান।

ফলে আমি ৮ সেপ্টেম্বর কসবা থানায় শফিক ও দুষ্ট চক্রের বিরুদ্ধে কসবা থানায় সাধারন ডাইরি করি। তিনি বলেন,এব্যাপারে তিনি আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এমপিকেও বার্তা পাঠিয়েছেন। সোলেমান খান বলেন যার সম্পর্কে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে সে একজন বিতর্কিত সাবেক কাউন্সিলর ।তাঁর বিরুদ্ধে গ্রামবাসীর অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে।

এলাকার রাজনৈতিক নেতাদের অনেকেই বলেন শফিকুল ইসলামও একজন বিতর্কিত লোক।সে বহু মামলার আসামী।বর্তমানেও সে দুটি মামলার গ্রেপ্তারী পরোয়ানা নিয়ে প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করছে।

দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার কসবা উপজেলা প্রতিনিধি ভজন শংকর আচার্য এঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন;এমন আচরন করা হলে এখানে স্বাধীন সাংবাদিকতা করা সম্ভব নয়।অথচ খোদ আইনমন্ত্রী নিজেই সাংবাদিকদের সংগে মতবিনিময় সভায় বলেছেন; অন্যায় করলে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যেন নিউজ করা হয়। এঘটনায় কসবায় সাংবাদিক সমাজ উদ্বিগ্ন।

মো.সোলেমান খানঃ

digital

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *